১০ লাখে ‘নিট’ পরীক্ষায় পাশ – এটাই বাস্তব

0 0
Read Time:2 Minute, 33 Second

নিউজ ডেস্ক ::বেশ কয়েকদিন ধরেই নিট পরীক্ষার ফলাফল নিয়ে চলেছে বিতর্ক। পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে। আর এর মধ্যেই সামনে আসলো ভয়ঙ্কর খবর। গুজরাট থেকে গ্রেফতার ‘চিটিং গ্যাং’। গ্রেফতার কোচিং সেন্টারের মালিক সহ ৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এক অভিযুক্তের কাছ থেকে ৭ লক্ষ টাকা নগদ উদ্ধার করা হয়েছে। ডাক্তারির পরীক্ষা নিট ঘিরে ব্যাপক দুর্নীতির অভিযোগ। টাকার বিনিময়ে প্রশ্নপত্র ফাঁস, পরীক্ষায় পাশ করিয়ে দেওয়া হচ্ছিল বলেই অভিযোগ। এই অভিযোগের ভিত্তিতেই গুজরাটের গোধরা থেকে চারজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। মূল অভিযুক্তের নাম পরশুরাম রায়। তিনিই নিট পরীক্ষায় পাশ করানোর র‌্যাকেটের মূল মাথা। এতদিন এটাই চিৎকার করে বলতেন এখন দুর্নীতির আতুরঘর বাংলা। এখন দেখা যাচ্ছে, সারা ভারতব্যাপী চলেছে দুর্নীতি।

সূত্রের খবর, রায় ওভারসিজ কোম্পানি নামে একটি সংস্থা চালান পরশুরাম। তাঁর সঙ্গী তুষার ভাট। তিনি গোধরার জয় জলরাম স্কুলের শিক্ষক। এরা দুইজন মিলেই নিট পরীক্ষায় দুর্নীতির চক্র চালাত। পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে টাকা নিয়ে, তার বিনিময়ে তাদের উত্তরপত্র লিখে দেওয়া হত। এর জন্য মাথা পিছু ১০ লক্ষ টাকা করে ‘রেট’ ধার্য করা হয়েছিল।
পরশুরাম রায় নামক কোচিং সেন্টারের মালিকও আরিফের মাধ্যমেই তুষার ভাটের কাছে ২৬ জন নিট পরীক্ষার্থীর যাবতীয় ডিটেইলস পাঠিয়েছিল। এদের মধ্যে ৬ জন পড়ুয়ার পরীক্ষার সিট পড়েছিল তুষার ভাটের জয় জলরাম স্কুলেই। গোধরার জেলাশাসকের কাছেই প্রথম অভিযোগ আসে। এরপরই ডিস্ট্রিক এডুকেশন অফিসারের নেতৃত্ব তদন্ত শুরু করা হয়।

Happy
Happy
0 %
Sad
Sad
0 %
Excited
Excited
0 %
Sleepy
Sleepy
0 %
Angry
Angry
0 %
Surprise
Surprise
0 %

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!